Topic: নিজেরমতো সাজিয়ে নিন উইন্ডোজ৭ এর টাস্কবার

উইন্ডোজ এক্সপি’র মতন জনপ্রিয়তা লাভ না করতে পারলেও ধীরে ধীরে বাড়ছে উইন্ডোজ ৭ এর ব্যবহার। খুব অল্প সময়েই এটি পেছনে ফেলেছে উইন্ডোজ ভিসতাকে। উইন্ডোজ ৭ এর ইন্টারফেস উইন্ডোজ এক্সপি’র চেয়ে অনেকটা আলাদা। যার ফলে অনেকেই উইন্ডোজ ৭ ব্যবহার করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন না। উইন্ডোজ ৭ এর টাস্কবারের কিছু ফিচারকে নিজের মত করে সাজিয়ে নেয়ার জন্য কিছু টিপস নিয়ে আজকের এই লেখা। লিখেছেন সানজিদা সুলতানা

http://i.imgur.com/379db.jpg

অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে বিশ্বব্যাপী সবচেয়ে জনপ্রিয় উইন্ডোজের এক্সপি। এক্সপি’র সাফল্যের পরে মাইক্রোসফট উইন্ডোজ ভিসতা বাজারে আনলেও তা সাফল্য পায়নি। এর পরেই খুব দ্রুত মাইক্রোসফট নিয়ে আসে উইন্ডোজ ৭। ইউন্ডোজে এক্সপি’র মতো অভূতপূর্ব সাফল্য না পেলেও এটি জনপ্রিয়তায় ছাড়িয়ে যায় ইউন্ডোজ ভিসতাকে। আর এর নানান রকম সব নতুন ফিচারগুলো সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে তৈরি হয়েছে বলে সময়ের সাথে সাথে এর জনপ্রিয়তার গ্রাফটিও উর্ধ্বমুখী।

উইন্ডোজ এক্সপি বা উইন্ডোজ ভিসতা থেকে উইন্ডোজ ৭-এ যোগ করা হয়েচে অনেকগুলো নতুন ফিচার। বদলে দেয়া হয়েছে উইন্ডোজ লুক। বিশেষ করে বলা যঅ ইউন্ডোজ ৭ এর টাস্কবারের কথা। এই টাস্কবারটি ইউন্ডোজ এক্সপি’র তুলনায় অনেকখানি আলাদা। ম্যাক ওএস এক্স অপারেটিং সিস্টেমের ‘ডক’ এর আদল রয়েছে এই টাস্কবারে। এই টাস্কবারটিও তাই মুলত মাল্টি টাক্সিং। খুব সাধারণ কিছু পরিবর্তনের মাধ্যমেই এই টাস্কবারের সক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়া যায় অনেক খানি। উইন্ডোজ ৭ এর টাস্কবার সম্পর্কিত এরকম কিছু টিপস নিয়ে আলোচনা করা হলো।

টাস্কবারের থাম্বনেইল ডিসপ্লে’র গতি বাড়াতে

উইন্ডোজ ৭ এর টাস্কবারের বড় একটি সুবিধা হচ্ছে এর টাস্কবারের আইকনগুলোর উপরে মাউস নাড়ালে যে অ্যাপ্লিকেশনগুলো চালু রয়েছে তার একটি প্রিভিউ দেখা যায়। অর্থাত্ যেকোনো আইকনের উপর আপনি কার্সর রাখলে, অ্যাপ্লিকেশনটি চালু থাকলে তার বর্তমান অবস্থাটি দেখা যাবে ছোট্ট একটি পপ-আপ উইন্ডোতে। একসাথে অনেকগুলো প্রোগ্রাম বা অ্যাপ্লিকেশন চালু থাকলে এই প্রিভিউ দেখাটা বেশ কাজের। তবে এই প্রিভিউ দেখানোর সময় কার্সর আইকনে রাখার পর প্রিভিউ আসার মাঝের সময়টা অনেকের কাছে একটু বেশি মনে হতে পারে। অর্থাত্ প্রিভিউ দেখার জন্য সময় বেশি লাগছে বলে মনে হতে পারে। প্রিভিউ দেখাকে আরেকটু দ্রুত করার জন্য আপনি রেজিস্ট্রি সম্পাদনা করতে পারেন। রেজিস্ট্রি সম্পাদনা করে এই সময়টি দ্রুততর করতে নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন।

* প্রথমেই স্টার্ট মেন্যু থেকে সার্চ বক্সে regedit লিখে এন্টার দিন। এতে করে পিসি’র রেজিস্ট্রি এডিটর চালু হওয়ার জন্য অনুমতি চেয়ে একটি ডায়ালগ বক্স আসবে। ডায়লগ বক্স থেকে Run বাটনে ক্লিক করলেই চালু হবে রেজিস্ট্রি এডিটর।

* রেজিস্ট্রি এডিটরের বাম পাশ থেকে HKEY_CURRENT_USERControl PenalMouse ডিরেক্টরি নির্বাচন করুন।

* ডিরেক্টরি নির্বাচন করলে ডান পাশের বক্স থেকে Mouse Hover Time এ ডাবল ক্লিক করুন।

* যে উইন্ডোজটি চালু হয়েছে, তাতে defaulst valuet হিসেবে ৪০০ সেট করা আছে। আপনার পছন্দমতো Valueটি পরিবর্তন করুন। এই মানটি মিলিসেকেন্ড একক নির্দেশ করে। সেক্ষেত্রে ১৫০ থেকে ২০০ মান টাস্কবার থেকে অ্যাপ্লিকেশন প্রিভিউকে অনেকখানি দ্রুততর করবে।

* সবশেষে পিসি রিস্টার্ট দিলেই আপনার সেট করা নতুন Value-তে চলবে প্রিভিউ।

বি.দ্র:যে কোনো ধরনের উইন্ডোজ রেজিস্ট্রি সম্পাদনা করার পূর্বে উইন্ডোজের ‘Restore points’ তৈরি করে নেয়া বাঞ্ছনীয়।

টাস্কবারের আইকন পুর্নবিন্যাস করা

উইন্ডোজ ৭ এর টাস্কবারের আইকনগুলো চাইলেই পুনর্বিন্যাস করা যায়। ইচ্ছে করলে এতে আপনি নতুন অ্যাপ্লিকেশন যেমন যোগ করতে পারেন, তেমনি টাস্কবারের থাকা কোনো অ্যাপ্লিকেশন বাদও দিতে পারেন সহজেই। এই টাস্কবার ড্র্যাগ অ্যান্ড ড্রপ সমর্থন করে বলে যেকোনো অ্যাপ্লিকেশনের আইকন টাস্কবারে এনে ছেড়ে দিলেই তা যোগ হয়ে যাবে। আবার টাস্কবারে থাকা কোনো আইকনের উপর মাউসের কার্সার রাখলে সেটি যখন হাইলাইট হবে, তখন Delete বাটনটি চাপলেই তা টাস্কবার থেকে বাদ পড়ে যাবে। আর টাস্কবারে যে আইনকনগুলো রয়েছে, সেগুলোর স্থান পরিবর্তন করতে চাইলে কেবল আইকনটিতে মাউসের দ্বারা ক্লিক করে ধরে রেখে পছন্দের জায়গায় ছেড়ে দিলেই হবে।

নোটিফিকেশন এরিয়ার নিয়ন্ত্রণ

উইন্ডোজ ৭ এর টাস্কবারের একদম ডানপাশে রয়েছে নোটিফিকেশন এরিয়া। সব ধরনের সিস্টেম অ্যালার্ট এবং ম্যাসেজগুলো প্রদর্শিত হয় এই স্থানে। পাশাপাশি অপারেটিং সিস্টেমের ব্যাকগ্রাউন্ডে সাধারণত সে প্রোগ্রামগুলো রান করে, সেগুলোই এখানে প্রদর্শিত হয়। তবে এখানে কোন সমসয়ে কোন আইকন বা ম্যাসেজগুলো প্রদর্শিত হবে, চাইলে সেটিও কাস্টমাইজ করে নেয়া যায় ইচ্ছেমতো। নোটিফিকেশনটি এরিয়াটি কাস্টমাইজ করতে চাইলে নিজের ধাপগুলো অনুসরণ করতে হবে।

* টাস্কবারে মাউসের ডান বাটন ক্লিক করে Properties নির্বাচন করতে হবে।

* যে ডায়ালগ বক্সটি আসবে, তাতে নোটিফিকেশন এরিয়া অংশে Customise বাটনে ক্লিক করতে হবে।

* এখানে প্রদর্শিত প্রতটি অ্যাপ্লিকেশনের ডান পাশে রয়েছে একটি ড্রপ ডাউন মেন্যু। এখান থেকে সবসময় প্রদর্শন করার জন্য বা না করার জন্য অথবা নির্দিষ্ট কোনো সময়ে প্রদর্শন করার জন্য অপশন আসবে। প্রতিটি অ্যাপ্লিকেশনের জন্য তা নির্বাচন করে ok ক্লিক করতে হবে। এখান থেকে ঘড়ি, নেটওয়ার্ক, ভলিউম এর মতো সিস্টেম আইকন এবং সার্ভিসগুলোও কাস্টমাইজ করা যাবে।

মাউস ছাড়াই থাম্বনেইল প্রিভিউ দেখা

পিসিতে চালু সব ধরনের অ্যাপ্লিকেশগুলো সবসময় টাস্কবারে থাকে এবং মাউসের কার্সর এর উপরে নিয়ে আসলেই প্রিভিউ দেখা যায়। তবে মাউস না থাকলেও এই প্রিভিউ দেখা সম্ভব। এর জন্য কীবোর্ড থেকে Windows কী চেপে ধরে রাখা অবস্থা ‘T’ চাপতে হবে। এতে করে সবচেয়ে বামের যে অ্যাপ্লিকেশনটি চালু রয়েছে, সেটির প্রিভিউ দেখা যাবে। এরপর আবার ‘T’ চাপতে চাপতে ক্রমান্বয়ে সবগুলো অ্যাপ্লিকেশনের প্রিভিউই দেখা যাবে। 

মাউস ছাড়া টাস্কবার থেকে অ্যাপ্লিকেশন চালু

উইন্ডোজ ৭ এর টাস্কবারে থাকা যে কোনো অ্যাপ্লিকেশনে মাউসের ক্লিক করলেই অ্যাপ্লিকেশনটি চালু হয়ে যায়। তবে মাউস না থাকলে কেবল কীবোর্ডের সাহায্যেই সরাসরি টাস্কবারের যে কোনো অ্যাপ্লিকেশন চালু করা যায়। ‘Windows’ কী এর সাথে কীবোর্ড থেকে যেকোনো সংখ্যা চাপলেই টাস্কবার থেকে অ্যাপ্লিকেশন চালু হবে। এক্ষেত্রে ‘Windows+1’ চাপলে টাস্কবারের সবচেয়ে বামে যে অ্যাপ্লিকেশনটি রয়েছে, সেটি চালু হবে। আবার‘Windows+2’ চাপলে বাম থেকে দ্বিতীয় অ্যাপ্লিকেশনটি চালু হয়ে যাবে। এভাবে ‘Windows +9’ পর্যন্ত টাস্কবারের ৯টি অ্যাপ্লিকেশন চালু করা যাবে।

একই অ্যাপ্লিকেশনের একাধিক কপি চালু করা

উইন্ডোজ ৭-এ চালু থাকা যে কোনো অ্যাপ্লিকেশনের টাস্কবারের আইকনে ক্লিক করলে ওই চালু থাকা উইন্ডোজটি সামনে চলে আসে। কিন্তু যদি একই প্রোগ্রাম বা অ্যাপ্লিকেশন পুনরায় চালু করতে চান, তাহলে? হ্যাঁ, মনে করুন মাইক্রোসফট ওয়ার্ডে আপনার একটি ফাইল খোলা রয়েছে। এ অবস্থায় আপনি টাস্কবার থেকে ওয়ার্ডকে নতুন করে চালু করতে চান। এ কাজটিও খুব সহজেই করতে পারবেন আপনি। কীবোর্ড থেকে ‘Shift’ চেপে ধরে এই আইকনের উপর ক্লিক করলেই অ্যাপ্লিকেশনটির নতুন একটি উইন্ডো চালু হয়ে যাবে। এভাবে ‘Shift’ চেপে ধরে রেখে যতবার খুশি অ্যাপ্লিকেশনটির নতুন নতুন উইন্ডো চালু করতে পারেন।

কুইক লঞ্চবার

উইন্ডোজ ৭ এর টাস্কবারটি অনেকটা ‘ডক’ এর মতো কাজ করায় এতে আলাদা করে এক্সপি’র জনপ্রিয় ‘কুইক লঞ্চ’ টুলবারটি যোগ করা হয়নি। তবে আপনি যদি কুইক লঞ্চকে উইন্ডোজ ৭-এ ফিরিয়ে নিয়ে আসতে চান, সেটাও করতে পারবেন সহজেই। এটি করার জন্য টাস্কবারে মাউসের ডান বাটন ক্লিক করে ‘Toolbars’ নির্বাচন করে সাবমেন্যু থেকে ‘New Toolbar’ নির্বাচন করতে হবে। টুলবারটির নাম কুইক লঞ্চ দিয়ে এই টুলবারটির তথ্য ধারণের জন্য ফোল্ডারটির স্থান নির্ধারণ করে দিতে হবে। ফোল্ডারটি নির্বাচন করে দিলে আপনার পছন্দের এবং বেশি ব্যবহূত অ্যাপ্লিকেশনগুলোর সর্টকাট এই ফোল্ডারে রেখে দিতে হবে। তাহলেই টাস্কবারের নোটিফিকেশন এরিয়ার ঠিক বাম পাশে প্রদর্শিত হবে কুইক লঞ্চ এবং যেখানে ক্লিক করলেই আপনার পছন্দের অ্যাপ্লিকেশন লঞ্চ করার লিংক পেয়ে যাবেন।

সুত্র : ইত্তেফাক



Re: নিজেরমতো সাজিয়ে নিন উইন্ডোজ৭ এর টাস্কবার

অনেক নতুন ট্রিক্স জানলাম। শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।  big grin