Topic: বিশ্বকাপ বলের সমালোচনায় বিস্মিত অ্যাডিডাস

http://www.chobimohol.com/image-9799_4C0679B9.jpg

বিশ্বকাপের বল ভয়ংকর, বীভৎস! এ বল বিচ ফুটবলের জন্য বেশি উপযোগী। বিশ্বকাপের মতো গুরুত্বপূর্ণ আসরে এ বল ব্যবহার লজ্জাজনক। বিশ্বকাপের আগেই বল নিয়ে এসব সমালোচনার প্রতিক্রিয়ায় গত সোমবার বিস্ময় প্রকাশ করেছে বলটির সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান অ্যাডিডাস। প্রথমবারের মতো নিখুঁত গোলাকার বল দিয়ে খেলা হবে বিশ্বকাপে। আয়োজক দক্ষিণ আফ্রিকা স্থানীয় ভাষায় এর নাম দিয়েছে 'জাবুলানি'। বিশ্ব ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফাকে এ বল জোগান দিয়েছে অ্যাডিডাস। কিন্তু বিশ্বকাপের একেবারে দ্বারপ্রান্তে এসে বল নিয়ে সমালোচনার ঝড় বইছে। এ বল বিশ্বকাপ আসরের জন্য অযোগ্য বলে অভিযোগ করছেন গোলরক্ষক থেকে শুরু করে স্ট্রাইকার, ডিফেন্ডার, মিডফিল্ডার সবাই।
সমালোচকেরাও আবার ছোটখাটো কোনো দলের নয়। ব্রাজিলের গোলরক্ষক জুলিয়াস সিজার, স্ট্রাইকার লুইস ফ্যাবিয়ানো, ইতালির গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি বুফন, স্ট্রাইকার জিয়ামপাওলো পািজনি, স্পেনের গোলরক্ষক ইকার ক্যাসিয়াস, স্পেনের তারকা মিডফিল্ডার জাভি- সবার অভিযোগ বলের মান নিয়ে। তারকারা কেন হঠাৎ এতটা সমালোচনা করছেন, বুঝে উঠতে পারছে না বলটির সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান। অ্যাডিডাসের দাবি, এ বল যথেষ্ট পুরোনো। কয়েক মাস ধরে এ বল দিয়ে খেলছেন ফুটবলারেরা।
গত বছরের ডিসেম্বর থেকে বিভিন্ন লিগে এ বল ব্যবহৃত হয়েছে। বল নিয়ে সবার প্রতিক্রিয়াও ইতিবাচক ছিল। তার পরও বিশ্বকাপের ঠিক আগ মুহূর্তে বল নিয়ে বিতর্ক ওঠায় অ্যাডিডাসের মুখপাত্র বিস্মিয় প্রকাশ করে ফক্স স্পোর্টসকে বলেন, 'বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া সবগুলো দেশকে কয়েক মাস আগে আমরা এ বল সরবরাহ করেছি। এত দিন বলের সঙ্গে সবার অভ্যস্ত হয়ে ওঠার কথা। কিন্তু অবাক করার মতো বিষয় হলো, কেউ ভালো কিছু বলছেন না। কেবল সমালোচনা শুনতে হচ্ছে আমাদের। এ ঘটনায় আমরা পুরোপুরি বিস্মিত।

সূত্র: এখানে



Re: বিশ্বকাপ বলের সমালোচনায় বিস্মিত অ্যাডিডাস

অভিযোগ যদি সত্যি হয়, তাহলে আমি বলব এটি বিশ্বকাপের আকর্ষনকে আরো বহুগুন বাড়িয়ে দিবে। কারণ অভিযোগকারী বিশেষত গোল রক্ষকরা বলছেন, এই বলের গতিপথ তারা কোনমতেই বুঝে উঠতে পারছেন না। আমি মনে করি এতে আন্ডারডগ টীমগুলোই বেশি লাভবান হবে কারণ এই বলই তো তাদের অনেক অপ্রত্যাশিত গোলের সুযোগ এনে দিবে  chatterbox  chatterbox  chatterbox

সালাম সালাম হাজার সালাম, সকল শহীদ স্বরণে
আমার হৃদয় রেখে যেতে চাই, তাদের সৃতির চরণে