(edited by অচেনাকেউ 2010-05-25 14:04:00)

Topic: ছেলেরা বেশি মিথ্যা বলে!

নীতিগতভাবে মিথ্যা বলা উচিত নয়। প্রায় প্রত্যেক ধর্মেই মিথ্যাকে নিরুত্সাহিত করার জন্য পাপের ভয় দেখানো হয়েছে। পার্থিব আইন-আদালতও মিথ্যার বিরুদ্ধে খড়্গহস্ত। তবু পৃথিবীতে মানুষই একমাত্র প্রাণী, যারা মিথ্যা কথা বলে কিংবা মিথ্যা আচরণ দেখায়। তবে সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা গেছে, মানুষের মধ্যেও মিথ্যাভাষণের তারতম্য রয়েছে। বলা হয়েছে, মেয়েদের চেয়ে মিথ্যা বলায় ছেলেরাই এগিয়ে। শুধু তা-ই নয়, মিথ্যা বলার পর তাতে অনুশোচনায় ভোগার দিক দিয়েও মেয়েরা এগিয়ে। ছেলেরা খুব কমই মিথ্যা বলার জন্য অনুতপ্ত হয়।

ব্রিটেনে তিন হাজার নারী-পুরুষের মধ্যে জরিপ চালিয়ে দেখা গেছে এমনটা। গবেষকরা দেখেছেন গড় ব্রিটিশ পুরুষ প্রতিদিন কম পক্ষে তিনটি করে মিথ্যা কথা বলে। বছরে এর সংখ্যা দাঁড়ায় এক হাজার ৯২ টিতে। সে ক্ষেত্রে মেয়েরা কিছুটা লক্ষ্মী। একজন ব্রিটিশ মহিলা বছরে ৭২৮টির বেশি মিথ্যা কথা বলে না। দিনে মাত্র দুটো করে। আর মিথ্যা কথাটা সব চেয়ে বেশি শুনতে হয় ব্রিটিশ মায়েদের। সায়েন্স মিউজিয়াম পরিচালিত এই জরিপে বলা হয়েছে, ২৫ ভাগ ছেলে তাদের মায়েদের সঙ্গে মিথ্যা কথা বলে। আর মেয়েদের বেলায় এই পরিমাণ ২০ ভাগ। ওদিকে ১০ ভাগ নারী-পুরুষ বলেছে, তারা তাদের সঙ্গী-সঙ্গিনীদের সঙ্গেই বেশি মিথ্যা কথা বলে।

পুরুষ সঙ্গীরা সঙ্গিনীদের সঙ্গে বেশি মিথ্যা বলে পান করার ব্যাপারটা নিয়ে। প্রায় সময় সঙ্গিনীর অনুযোগের জবাবে বলে, ‘কই, না! খুব বেশি ড্রিঙ্ক করিনি তো! মাত্র এক পেগ।’ আর মেয়েদের বেলায় সে মিথ্যাটা হলো, ‘না না, ঠিক আছে। আমার কোন সমস্যা হচ্ছে না।’
আর একটা মিথ্যা অবশ্য দুই পক্ষই সমান তালে বলে থাকে। সঙ্গী বা সঙ্গিনী একে অন্যকে কোন কিছু উপহার দিতে গেলে দুই পক্ষের কমন মিথ্যা বুলি হলো, ‘ ধন্যবাদ। ঠিক এটাই আমি এতদিন ধরে চেয়েছিলাম।’

মিথ্যা বলার পর অনেক সময় অনুশোচনাও হয়ে থাকে মানুষের। নিজের কাছে নিজেকে অপরাধী মনে হয়। এদিক দিয়েও অবশ্য ছেলেদের চেয়ে মেয়েরা এগিয়ে। ৮২ ভাগ মেয়ে মিথ্যা বলে অনুতপ্ত হয়। আর ছেলেদের মধ্যে অনুশোচনার হার ৭০ ভাগ। তবে মজার ব্যাপার হলো, ৫৫ ভাগ ব্রিটিশ পুরুষ কিন্তু নিজেদের চেয়ে মেয়েদেরই বেশি মিথ্যাবাদী মনে করে থাকে।

সায়েন্স মিউজয়ামের এসোসিয়েট মেডিক্যাল কিউরেটর কেটি ম্যাগস বলেন, ‘মিথ্যা বলাটা মানুষের রক্তের সঙ্গে মিশে আছে। এটাকে একেবারে এড়িয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। তবে এটা সামাজিক জীবনে একটা মিথস্ক্রিয়া হিসেবে কাজ করে থাকে।’
সূত্রঃ এখানে।

একজন মানুষের জীবন হচ্ছে~ক্ষুদ্র আনন্দের সঞ্চয়,একেকজন মানুষের আনন্দ একেক রকম...http://www.rongmohol.com/uploads/1805_adda_logo_4.gif

গনযোগাযোগ সচিবঃ ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ, নীতি নির্ধারকঃ মুক্ত প্রযুক্তি।


Re: ছেলেরা বেশি মিথ্যা বলে!

আমি কিন্তু মিথ্যা বলি না,  :hyper:

Shout Me Crunch আমার ব্যক্তিগত টেক ওয়েবসাইট।


Re: ছেলেরা বেশি মিথ্যা বলে!

sawontheboss4 wrote:

আমি কিন্তু মিথ্যা বলি না,  :hyper:

পেপসোডেন্ট বাচ্চা'রা কখনো মিথ্যে বলে না  :cheerful:
[বিজ্ঞাপনের ভাষায় বললাম  happy  মাইন্ড খাইয়েন না যেন আবার  :awesome:

একজন মানুষের জীবন হচ্ছে~ক্ষুদ্র আনন্দের সঞ্চয়,একেকজন মানুষের আনন্দ একেক রকম...http://www.rongmohol.com/uploads/1805_adda_logo_4.gif

গনযোগাযোগ সচিবঃ ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ, নীতি নির্ধারকঃ মুক্ত প্রযুক্তি।


Re: ছেলেরা বেশি মিথ্যা বলে!

নবাব সিরাজুদ্দৌলার জুতো চোর ব্রিটিশরা মিথ্যা বলার ranking এ এক নম্বর থাকবে এটাই অতি স্বভাবিক।
আমরা বাংলাদেশীরাও কম যাইনা :whistling:  :whistling:

সালাম সালাম হাজার সালাম, সকল শহীদ স্বরণে
আমার হৃদয় রেখে যেতে চাই, তাদের সৃতির চরণে