Topic: নিনজা ব্লেড

দারুণ একটি গেমটি হলো নিনজা ব্লেড। এ গেমটির কমবাক্ট ফিয়েচার ডেভিল মে ক্রাই থেকে কোনো অংশে কম না। এই গেমটির মনোমুগ্ধকর অ্যাকশন প্লের জন্য একে ‘সিনেম্যাটিক অ্যাকশন’ ও ‘হ্যাক ও স্ল্যাস অ্যাকশন’-এর সংমিশ্রণ ক্যাটাগরিতে রাখা হয়েছে। তাই আপনারা গেম খেলার সময় একসঙ্গে গেম খেলা ও মুভি দেখার পূর্ণ স্বাদ পাবেন। সব সময় টান টান উত্তেজনার মাঝে থাকবেন গেমটি খেলার সময়।
গেমটি ডেভেলপ করে From Software এবং পিসি ও এক্সবক্স ৩৬০-এর জন্য গেমটি পাবলিশ করে গেমটি রিলিজ পায় ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর জাপানে এবং ২০০৯ সালের ১০ মার্চ উত্তর আমেরিকায়। গেমটির নায়ক কেন্ ওগাওয়া’র অসাধারণ মুভমেন্ট আর চোখ ধাঁধানো অ্যাকশন স্টাইলের জন্য গেমটি হয়ে উঠেছে এক কথায় অতুলনীয়। গেমটির পটভূমি রচিত হয়েছে ২০১৫ সাল নিয়ে। জাপানের একটি ছোট্ট গ্রাম। হঠাত্ করে সেখানে এক অজানা প্রাণী আক্রমণ করল। যারা বেঁচে থাকল তারা টোকিও গবেষণা কেন্দ্রে গেল, যেখানে তাদের ওপর পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলল। পরীক্ষায় তারা এক অজানা ধরনের পরজীবী ওর্ম আবিষ্কার করল এবং এর নাম দিল আলফা ওর্ম। এর ওপর কোনো ওষুধের প্রতিক্রিয়া নেই। আস্তে আস্তে সারা শহরে ছড়িয়ে পড়ল। অবস্থা এত খারাপ পর্যায়ে পৌঁছল যে, সরকার সেনাবাহিনী নামাতে বাধ্য হলো, ওর্মগুলো মানুষের ভেতরে ঢুকে তাদের ভয়ঙ্কর মিউট্যান্টে পরিণত করতে থাকল। ওর্মদের রানী পুরো জাপানকে গ্রাস করতে চাইল, সেনাবাহিনী নামিয়েও যখন কাজ হলো না তখন সরকার পক্ষ আবেদন করল এলিট নিনজা ফোর্সের কাছে যেখানে একদল নিনজাকে ট্রেনিং দেয়া হয়েছে এ ধরনের পরিস্থিতি মোকাবিলা করার জন্য। যাদের মধ্যে একজন হলো কেন ওগাওয়া, এ গেমের মূল চরিত্র। আর তাদের লিডার হলো কেনের বাবা। কিন্তু একসময় কেনের বাবা বিশ্বাসঘাতকতা করে আর আলফা ওর্মদের সঙ্গে যোগ দেয়, কেনকে মেরে ফেলার চেষ্টা করে। কিন্তু ভাগ্যবশত সে বেঁচে যায়। তখন সে উঠেপড়ে লাগে তার বাবাকে ঠেকানোর জন্য। পথে থাকে অত্যন্ত ভয়ঙ্কর সব মিউট্যান্ট, কিন্তু সে সব বাধাবিপত্তি অতিক্রম করে এগিয়ে চলে। এক সময় সে বুঝতে পারে তার বাবা আলফা ওর্মদের রানীকে ঠেকানোর জন্য নিজেকে উত্সর্গ করেছে। রানীকে নিজের শরীরে ধারণ করে নিজেকে তাদের একজন করে নেয়। কারণ সে জানত, যদি তাকে কেউ ঠেকাতে পারে সে হলো কেন? আর তাকে হত্যা করা মানেই রানীকে হত্যা করা।

http://my.jetscreenshot.com/2862/m_20110524-z9us-52kb.jpg

তবে গেমটির গ্রাফিক্স খুব ভালো, আর গেমপ্লে তো কথাই নেই। খেলার সময় পাবেন তিন ধরনের সোর্ড : কাতানা, স্টনরেন্ডার আর টোয়াইন ফ্যাল্কন নাইভস, যা একেক সময় একেক পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে সাহায্য করবে। আরও আছে নিনজা সু (চরকির মতো অস্ত্র), যার আছে তিন ধরনের পাওয়ার। সুযোগ বুঝে আপনাদের এসব অস্ত্রের ব্যবহার করতে হবে। আর আছে নিনজা ভিশন, যা দিয়ে সময়ের গতি কমানো ও হিডেন টার্গেট দেখতে পারবেন। প্রতিটি স্টেজের শেষে বোনাস পয়েন্ট পাবেন, যা দিয়ে অস্ত্রগুলো আপগ্রেড করা যাবে। ইচ্ছা করলে কেনের পোশাক পরিবর্তন করে নিতে পারবেন। দেয়াল বেয়ে ওঠা, দেয়াল দিয়ে হেঁটে যাওয়া, গ্লাইডিং প্রভৃতি মুভমেন্ট করতে পারবেন। গেমের কিছু কিছু জায়গায় আপনাকে মোটরবাইক, বিমান, ট্যাঙ্ক ব্যবহার করতে হতে পারে। এই গেমটি দুর্দান্ত ও উত্তেজনাকর গেম, গেমটির প্রতিটি স্টেজের প্রতিটি মুহূর্তে আপনি চরম উত্তেজনা অনুভব করবেন। প্রতিটি স্টেজে ‘বস’ একেবারে শেষে না থেকে প্রথম থেকে স্টেজের শেষ পর্যন্ত বসের সঙ্গে লড়তে হবে, আর কিছুক্ষণ পরপরই আপনাদের সিনেম্যাটিক অ্যাকশন প্লে করতে হবে, যেটাকে এই গেমে বলা হয়েছে ‘কিউটিই ইফেক্ট’, আর প্রতিটি স্টেজে ২-৩টি বসের মোকাবিলা করতে হবে। সব মিলিয়ে হলিউড অ্যাকশন মুভি দেখার স্বাদ পাবেন এই গেমের মধ্য দিয়ে। প্রতিটি স্টেজে অ্যাকশন আনলক করতে পারবেন, দেখতে পাবেন মনোমুগ্ধকর অ্যাকশন।

লেখক - এম. হারুন আর রশিদ
সুত্র



Re: নিনজা ব্লেড

আমি গেম খেলিনা

মেডিকেল বই এর সমস্ত সংগ্রহ - এখানে দেখুন
Medical Guideline Books